১৮-জুলাই-২০২৪
১৮-জুলাই-২০২৪
Logo
বিনোদন

ক্যারিয়ারের প্রথম একক কনসার্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিতঃ ২০২২-০৯-১১ ১৯:১৩:১০
...

৩০ বছরের সংগীত ক্যারিয়ারে প্রথম একক কনসার্টে অংশ নিতে যাচ্ছেন নন্দিত কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত পরিচালক বাপ্পা মজুমদার।  ‘অ্যালাইভ এক্সপেরিয়েন্স’ শিরোনামের এই কনসার্টের নিবেদন করছে এয়ারস্টার।  আয়োজনে আছে এলাইভ।  আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার বসুন্ধরার ৩নম্বর হলে কনসার্টটি অনুষ্ঠিত হবে।  এদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত পর্যন্ত চলবে সংগীতের এই আয়োজন।  এতে অতিথি শিল্পী অংশ নেবেন এ সময়ের আলোচিত দুই কণ্ঠশিল্পী দিলশাদ নাহার কণা ও ডি-রকস্টার তারকা শুভ।  এ নিয়ে বাপ্পা মজুমদার বলেন, ‘প্রথম একক কনসার্টে পারফর্ম করতে যাচ্ছি- এটা অন্যরকম এক ভালো লাগার।  ৩০ বছরের সংগীত ক্যারিয়ার আমার।  অথচ সংগীতের এই দীর্ঘ সফরে কেন জানি না, একক কনসার্ট করা হয়নি।  অনেকের কাছে বিষয়টি অবাক করার মতো, কিন্তু এটাই সত্যি।  অবশেষে একক পারফর্ম করার সুযোগ করে দেওয়ায় আয়োজক প্রতিষ্ঠান এলাইভকে ধন্যবাদ।  আশা করছি, এই আয়োজনে শ্রোতার প্রত্যাশা পূরণ করতে পারব। ’ আয়োজকরা জানান, শ্রোতারা নির্দিষ্ট দামে যেকোনো একটি টিকিট সংগ্রহ করে এই কনসার্ট উপভোগ করতে পারবেন। 

বাপ্পার পারিবারিক নাম শুভাশীষ মজুমদার বাপ্পা।  ছোটবেলাতেই সংগীতে হাতেখড়ি সংগীত পরিবারে জন্ম নেওয়া বাপ্পার।  বড় ভাই পার্থ মজুমদারের কাছেই গিটার বাজানো শিখেছেন।  ১৯৯৫ সালে প্রথম একক অ্যালবাম ‘তখন ভোর বেলা’ দিয়ে সংগীতজগতে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি।  যা শ্রোতামহলে বেশ প্রশংসিত হয়। 

পরের বছর প্রয়াত সংগীত ব্যক্তিত্ব সঞ্জীব চৌধুরীকে নিয়ে গড়ে তোলেন ব্যান্ড ‘দলছুট’।  ১৯৯৭ সালে প্রকাশ পায় বান্ডটির প্রথম একক অ্যালবাম ‘আহ!’।  অ্যালবামটির একাধিক গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়।  একক ক্যারিয়ার এবং ব্যান্ড দুটির মাধ্যমেই দুই যুগের বেশি সময় ধরে শ্রোতাদের মুগ্ধ করে যাচ্ছেন বাপ্পা মজুমদার।  যখন যেভাবেই গান করেন না কেন বাপ্পার গান মানেই শ্রোতাদের কাছে বিশেষ কিছু।  ক্যারিয়ারের শুরু থেকে আজ অবধি সবসময়ই নিজের স্বকীয়তা বজায় রেখে কাজ করছেন এই তারকা।  কণ্ঠের পাশাপাশি গানের কথা, সুর ও সংগীতায়োজনে দিয়ে যাচ্ছেন শুদ্ধতার স্বাদ।  আর সে কারণে সমালোচকদের কাছেও তিনি ভীষণ প্রিয়। 

দীর্ঘ ক্যায়ািরে বাপ্পা মজুমদার উপহার দিয়েছেন-‘পরী’, ‘বাজি’, ‘দিন বাড়ি যায়’, ‘সূর্যস্নানে চল’, ‘রাতের ট্রেন’, ‘বৃষ্টি পড়ে’, ‘চাইছো যখন’, ‘জানালার গ্লাস’-এর মতো জনপ্রিয় সব গান। 

২০১৮ মুক্তি পাওয়া ‘সত্তা’ সিনেমার ‘না জানি কোন অপরাধে’ শিরোনামে গানের জন্য শ্রেষ্ঠ সুরকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন তিনি।  পেয়েছেন চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসহ আরো অনেক সম্মাননা।  তবে এই সংগীত সাধকের কাছে সবচেয়ে বড় পুরস্কার অগণিত ভক্তের ভালোবাসা।